শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৭:২৩ অপরাহ্ন

বিশ্বসেরা ১০ চিন্তাবিদের মধ্যে একজন বাংলাদেশের মেরিনা তাবাশ্যুম

বিশ্বসেরা ১০ চিন্তাবিদের মধ্যে একজন বাংলাদেশের মেরিনা তাবাশ্যুম

 

ব্রিটিশ সাময়িকী প্রসপেক্টের ৫০ চিন্তাবিদের মধ্যে শীর্ষ ১০–এ স্থান করে নিয়েছেন বাংলাদেশের স্থপতি মেরিনা তাবাশ্যুম। তিনি ১০ জনের মধ্যে তৃতীয় স্থান পেয়েছেন। ২ সেপ্টেম্বর প্রসপেক্টে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে নির্বাচনের মাধ্যমে ৫০ থেকে শীর্ষ ১০ জনের নির্বাচিত হওয়ার কথা জানানো হয়। এ তালিকায় শীর্ষ স্থান পেয়েছেন ভারতের কেরালা রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজা।

 

প্রসপেক্ট গত ১৪ জুলাই ৫০ জন সেরা চিন্তাবিদের তালিকা প্রকাশ করে। তখন সাময়িকীতে বলা হয়, ব্যবহারিক ধারণা ও চিন্তা সম্পর্কে অজানা প্রশ্নের উত্তর দিতে মানুষের মধ্যে উপলব্ধি তৈরির চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নেই। জুলাইয়ের ৫০ জন নির্বাচিত করার পর আবার শীর্ষ ১০ জন বাছাই করতে ২০ হাজার ভোট গ্রহণ করা হয়। সেখানে তৃতীয় স্থান পাওয়া মেরিনা তাবাশ্যুম সম্পর্কে বলা হয়েছে, ‘তিনি মনোনিবেশ করেছেন এক বাস্তব সমস্যার দিকে। আর সেটি হলো জলবায়ু পরিবর্তন। এর ফলে পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেলে সে উপযোগী ঘরবাড়ি তৈরির নকশা করেছেন।’

 

ঢাকার দক্ষিণখানে বায়তুর রউফ নামের একটি শৈল্পিক নকশার মসজিদের জন্য ২০১৮ সালে স্থপতি হিসেবে জামিল প্রাইজ পান মেরিনা তাবাশ্যুম। এর আগে একই নকশার জন্য ২০১৬ সালে তিনি সম্মানজনক আগা খান পুরস্কার পান। সুলতানি আমলের স্থাপত্যের আদলে নকশাকৃত এ মসজিদ ২০১২ সালে ঢাকায় নির্মিত হয়। এবার প্রসপেক্টের তালিকায় শীর্ষ ১০–এ থাকা প্রথমজন কেরালার স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজা কোভিড-১৯ থেকে রাজ্যের মানুষের সুরক্ষায় ব্যাপক ভূমিকা রেখেছেন। ভারতের কেরালা সংক্রমণ রোধে বৈশ্বিক স্বীকৃতি পেয়েছে। সেই জানুয়ারিতে চীনে যখন সংক্রমণ প্রবল হচ্ছে, তখনই নিজ রাজ্যে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন ‘টিচার’ নামে পরিচিতি এই মন্ত্রী। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) ‘পরীক্ষা, শনাক্ত ও বিচ্ছিন্ন’ করার নীতির ওপর ভিত্তি করে সংক্রমণ রোধে কাজ শুরু করেন। সফলতাও পান। এই কোভিড-১৯–এর সংক্রমণ রোধে এখন পর্যন্ত সফলতা দেখিয়েছে নিউজিল্যান্ড। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন আছেন দ্বিতীয় স্থানে। বাংলাদেশের মেরিনা তাবাশ্যুমের পর আছেন আফ্রিকান-আমেরিকান দার্শনিক কোরনেল ওয়েস্ট, ব্রাজিলের রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ইলোনা জ্যাবো দে কার্ভালহো, ইতিহাসবিদ ওলিভেট ওটেলে, মার্কিন ভূগোলবিদ রুথ উইলসন গিলমোর, বেলজিয়ামের দার্শনিক ফিলিপ্পে ফন প্যারিস, নেদারল্যান্ডসের শিক্ষাবিদ মার্ক পোস্ট ও পোলিশ-ব্রিটিশ জীববিজ্ঞানী ম্যাগডালিনা জারনিকা গোয়েৎস।

বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদদের তালিকায় শেখ হাসিনা

 

বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদের তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী সাময়িকী ‘দ্য ফরেন পলিসি’ বিশ্বের সেরা চিন্তাবিদদের এ তালিকা প্রকাশ করেছে।

 

সাময়িকীটি তাদের ১০ম বার্ষিকীর বিশেষ সংস্করণে এসব চিন্তাবিদের নাম ও কাজের বর্ণনা প্রকাশ করেছে। সেখানে প্রথম স্থানে জায়গা করে নিয়েছেন শেখ হাসিনা। মিয়ানমারে গণহত্যা ও নির্যাতনের শিকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় তাকে এ সম্মান দেওয়া হয়েছে।

 

গত ১০ বছরে বিশ্বের সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ১০টি বিভাগে ১০ জন করে সেরা ব্যক্তিত্ব বেছে নিয়ে তৈরি করা হয়েছে এ তালিকা। তালিকায় ‘প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা’ বিভাগে ১০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন শেখ হাসিনা।

 

‘দ্য ফরেন পলিসি’ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে বলেছে, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে অন্যতম বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেছে। মিয়ানমার সেনাবাহিনী দেশটির রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন ও গণহত্যা চালায়। ভয়ে বিপদসংকুল পথ পাড়ি দিয়ে ৭ লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আসে। রোহিঙ্গাদের বাংলা দেশে আশ্রয় দিয়ে বিশ্বনেতৃত্বের দৃষ্টি কেড়েছেন বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাছিনা। এখন শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের নিজ দেশ মিয়ানমারে ফেরত পাঠাতে তৎপরতা শুরু করেছেন। নিরাপত্তার কারণে জাতিসংঘ ও মানবাধিকার সংস্থাগুলো রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিরোধিতা করছে। তা সত্ত্বেও শেখ হাসিনার সরকার লাখো রোহিঙ্গাকে দেশে ফেরার পথ তৈরি করতে কাজ করে যাচ্ছে।

 

এই বিভাগে সবার ওপরে আছেন ইরানের কুদস ফোর্সের কমান্ডার কাশেম সুলেয়মানি। এর পর আছেন জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওরসুলা ফন ডার লেয়ান, মেক্সিকোর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ওলগা সানজেন করডেরো, ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবিই আহমেদ, স্পেসএক্স-এর প্রেসিডেন্ট গুয়েনে শটওয়েল, প্যালানটিয়ারের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যালেক্স কার্প, বেলিংক্যাট-এর প্রতিষ্ঠাতা সাংবাদিক ইলিয়ট হিগিংস, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সহযোগী ভ্লাদিস্লাভ সুরকভ, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্র ও মৎস্যবিষয়ক মন্ত্রী সুশি পদজিয়াৎসু।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2020
Desing & Developed BY NewsRush